লোকজ শিল্প

695.00

In Stock

Sku: 9789381140574

সম্পাদনা বরুণকুমার চক্রবর্তী

লোকজ শিল্প গ্রন্থটি লোকশিল্প সংক্রান্ত পঞ্চাশটি প্রবন্ধের সংকলন। সংকলিত প্রবন্ধগুলিকে সাতটি উপবিভাগে বিন‌্যস্ত করা হয়েছে। লোক চিত্রকলা পর্যায়ে স্থান পেয়েছে মোট আটটি আলোচনা। এই পর্যায়ে বাংলার আলপনা, কালীঘাটের পট, জড়ানো পটচিত্র, দেওয়াল চিত্র, চড়িদার মুখোশ, দশাবতার ভাগ, পুঁথির পটচিত্র এবং দুর্গা-লক্ষ্মীরা স্থান পেয়েছে। ধাতু নির্মিত লোকশিল্প পর্যায়ে স্থান পেয়েছে মোট পাঁচটি আলোচনা। আলোচিত বিষয়গুলির মধ‌্যে রয়েছে তাম্র শিল্প, লৌহ শিল্প, ডোকরা শিল্প, কাঁসা-পেতল শিল্প এবং বীরভূমের সেরপাই শিল্প। বাঁশ বেত ও পাঁট শিল্প পর্যায়ে মোট চারটি আলোচনাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই বিভাগে আলোচিত হয়েছে বেত শিল্প, পাট শিল্প, ত্রিপুরার বাঁশ শিল্প, নকশি ছাঁদ ও বাঁশ কারিগর। মাটি ও কাঠের লোকশিল্প-র অন্তর্ভুক্ত হয়েছে কৃষ্ণনগরের মৃৎশিল্প, বলাগড়ের নৌশিল্প, বাংলার মন্দির শিল্প, টেরাকোটা, দারু ভাস্কর্য শিল্প প্রসঙ্গে ছ-টি রচনা। বয়নশিল্প পর্যায়ে আলোচিত বিষয়গুলির মধ‌্যে রয়েছে নকশিকাঁথা, বাংলাদেশের জামদানি, উত্তরবঙ্গের মেচ জনগোষ্ঠীর বয়ন শিল্প, রেশম শিল্প ইত‌্যাদি। প্রবন্ধের সংখ‌্যা এই পর্যায়ে সাত। বৈচিত্রময় লোকশিল্প পর্যায়ে সর্বাধিক_মোট পনেরোটি_আলোচনাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আলোচিত বিষয়গুলির মধ‌্যে  রয়েছে আমসত্ত্ব ও সন্দেশের ছাঁচ, উত্তরবঙ্গের শোলা শিল্প, মুর্শিদাবাদের গজদন্ত শিল্প, বাংলার হস্তশিল্প, তুলসী মঞ্চ, বাংলাদেশের শীতলপাটি, বড়ি শিল্প, কুসুম শিল্প, পুরুলিয়ার লাক্ষা শিল্প, চন্দননগরের শঙ্খ শিল্প ইত‌্যাদি। পাঁচটি প্রবন্ধকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে লোকশিল্প সম্পৃক্ত তাত্ত্বিক ভাবনা পর্যায়ে। গ্রন্থটির বৈশিষ্ট‌্য হল : সংকলিত রচনায় মূলত ক্ষেত্রানুসন্ধানলব্ধ অভিজ্ঞতার ওপর নির্ভরতা। সেইসঙ্গে পর্যাপ্তসংখ‌্যক আলোকচিত্রের যোগ‌্য সংগত। আলোচনায় গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে কয়েকটি নির্বাচিত অঞ্চলকে। যেমন_লাক্ষাশিল্পের জন‌্য পুরুলিয়া, শঙ্খ শিল্পের জন‌্য চন্দননগর, জামদানি ও শীতলপাটির জন‌্য বাংলাদেশ কিংবা গজদন্তের জন‌্য মুর্শিদাবাদকে। আলোচকদের মধ‌্যে প্রবীণ গবেষক যেন আছেন, তেমনি আছেন নবপ্রজন্মের নবীন গবেষকও।

Compare

সম্পাদনা বরুণকুমার চক্রবর্তী

লোকজ শিল্প গ্রন্থটি লোকশিল্প সংক্রান্ত পঞ্চাশটি প্রবন্ধের সংকলন। সংকলিত প্রবন্ধগুলিকে সাতটি উপবিভাগে বিন‌্যস্ত করা হয়েছে। লোক চিত্রকলা পর্যায়ে স্থান পেয়েছে মোট আটটি আলোচনা। এই পর্যায়ে বাংলার আলপনা, কালীঘাটের পট, জড়ানো পটচিত্র, দেওয়াল চিত্র, চড়িদার মুখোশ, দশাবতার ভাগ, পুঁথির পটচিত্র এবং দুর্গা-লক্ষ্মীরা স্থান পেয়েছে। ধাতু নির্মিত লোকশিল্প পর্যায়ে স্থান পেয়েছে মোট পাঁচটি আলোচনা। আলোচিত বিষয়গুলির মধ‌্যে রয়েছে তাম্র শিল্প, লৌহ শিল্প, ডোকরা শিল্প, কাঁসা-পেতল শিল্প এবং বীরভূমের সেরপাই শিল্প। বাঁশ বেত ও পাঁট শিল্প পর্যায়ে মোট চারটি আলোচনাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই বিভাগে আলোচিত হয়েছে বেত শিল্প, পাট শিল্প, ত্রিপুরার বাঁশ শিল্প, নকশি ছাঁদ ও বাঁশ কারিগর। মাটি ও কাঠের লোকশিল্প-র অন্তর্ভুক্ত হয়েছে কৃষ্ণনগরের মৃৎশিল্প, বলাগড়ের নৌশিল্প, বাংলার মন্দির শিল্প, টেরাকোটা, দারু ভাস্কর্য শিল্প প্রসঙ্গে ছ-টি রচনা। বয়নশিল্প পর্যায়ে আলোচিত বিষয়গুলির মধ‌্যে রয়েছে নকশিকাঁথা, বাংলাদেশের জামদানি, উত্তরবঙ্গের মেচ জনগোষ্ঠীর বয়ন শিল্প, রেশম শিল্প ইত‌্যাদি। প্রবন্ধের সংখ‌্যা এই পর্যায়ে সাত। বৈচিত্রময় লোকশিল্প পর্যায়ে সর্বাধিক_মোট পনেরোটি_আলোচনাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আলোচিত বিষয়গুলির মধ‌্যে  রয়েছে আমসত্ত্ব ও সন্দেশের ছাঁচ, উত্তরবঙ্গের শোলা শিল্প, মুর্শিদাবাদের গজদন্ত শিল্প, বাংলার হস্তশিল্প, তুলসী মঞ্চ, বাংলাদেশের শীতলপাটি, বড়ি শিল্প, কুসুম শিল্প, পুরুলিয়ার লাক্ষা শিল্প, চন্দননগরের শঙ্খ শিল্প ইত‌্যাদি। পাঁচটি প্রবন্ধকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে লোকশিল্প সম্পৃক্ত তাত্ত্বিক ভাবনা পর্যায়ে। গ্রন্থটির বৈশিষ্ট‌্য হল : সংকলিত রচনায় মূলত ক্ষেত্রানুসন্ধানলব্ধ অভিজ্ঞতার ওপর নির্ভরতা। সেইসঙ্গে পর্যাপ্তসংখ‌্যক আলোকচিত্রের যোগ‌্য সংগত। আলোচনায় গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে কয়েকটি নির্বাচিত অঞ্চলকে। যেমন_লাক্ষাশিল্পের জন‌্য পুরুলিয়া, শঙ্খ শিল্পের জন‌্য চন্দননগর, জামদানি ও শীতলপাটির জন‌্য বাংলাদেশ কিংবা গজদন্তের জন‌্য মুর্শিদাবাদকে। আলোচকদের মধ‌্যে প্রবীণ গবেষক যেন আছেন, তেমনি আছেন নবপ্রজন্মের নবীন গবেষকও।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “লোকজ শিল্প”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top